কথায় কথায় ধর্ম অনুভূতি

Directional signs pointing to various religions

সাভারে বাসে ধর্ষণ করে যেই মেয়েটাকে হত্যা করা হয়েছিল সেই ঘটনায় জড়িত ছিল তিনজন। চালক আর দুই সহকারী। তিনজনকেই সনাক্ত করা হয়েছে, গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই তিনজনের বাড়িতে এলাকাবাসী ভাঙচুর চালায়নি, ঘরে আগুন দেয়নি। বিশ্বজিৎ-কে ছাত্রলীগের যে পান্ডাবরেরা প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যা করেছিল তাদের সনাক্ত করে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে কোথাও শোনা যায় নাই এলাকাবাসী খুনিদের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে কিংবা আগুন দিয়েছে কিংবা পরিবারকে এলাকা থেকে বের করে দিয়েছে। আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে বহু ধর্ষণ করেছে। আপন জুয়েলার্সের মালিক পর্যন্ত ছেলের পক্ষ নিয়ে সাফাই গেয়েছে। উত্তেজিত জনতা আপন জুয়েলার্সের একটি শাখাও ভাঙচুর করে নাই। তাদের ব্যাবসা চলছে।


ঘটনাস্থল কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী, দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়া মেয়েটার বয়স ছিল ১০ বছর। মেয়েটা প্রতিদিন সকালে মুমুরদিয়া ফোরকানিয়া মাদ্রাসায় কোরআন শরীফ পড়তে যায়। মাদ্রাসা ছুটির পর তার শিক্ষক অন্য শিক্ষার্থীদের বিদায় দিলেও তাকে একটি কক্ষে নিয়ে মুখ রুমাল দিয়ে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন চালায়। মাদ্রাসা থেকে কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফিরে শিশুটি তার বাবা-মাকে এসব কথা জানায়। অভিযুক্ত শিক্ষক জয়নাল মিয়া মুমুরদিয়া বাজার জামে মসজিদের ইমাম। সেই মসজিদের ইমাম সাহেবের পরিবারের ওপর উত্তেজিত জনতা কোন আক্রোশ নেই।


ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের মালো পাড়ার বৃষ্ণ মালোর বাড়ি ও বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে উত্তেজিত মানুষ। ধর্মাভূতিতে আঘাত দিয়ে কিসব যেন ফেসবুকে পোষ্ট করেছিল বৃষ্ণ মালো। 
বলে দিতে হয় না যে ঘটনার গভীরে গেলে আরকেটা নাসিরনগরের মঞ্চায়ন হবার সম্ভাবনা প্রবল। ধরেন সত্যই হলো, সত্যিই বাজে কোন কিছু সেই লোক পোষ্ট করেছিলো, তবুও কি তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করার আর আগুন দেয়ার অধিকার আপনাদের আছে?


দিনাজপুরের পার্বতীপুরে পাঁচ বছরে বাচ্চা মেয়ে পূজাকে ধর্ষণের আগে গোপনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে বড় করা হয়েছিল। কোন শুয়রেরবাচ্চারে তো দেখলাম না সেই ধর্ষকের বাড়ি ভেঙে মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে, ঘরে আগুন দিতে।


কথায় কথায় অনুভূতি মারাস জানোয়ারের দল,
তোদের অনুভূতি আমার বালের অনুভূতি…