মাদ্রাসা হইতে সাবধান….!!!

পাঠিয়েছেন ক্যাটম্যান

‘আপনার ছেলে-মেয়েকে স্কুলে পাঠান’ এমন আহ্বান সংবলিত বাক্য বিভিন্ন ট্রাক, বাস ও কাভার্ড ভ্যানের পেছনে প্রায়শ লক্ষ্য করা যায়। ইদানিং উপর্যুক্ত আহ্বান সংবলিত বাক্যটির প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে ‘আপনার ছেলে-মেয়েকে মাদ্রাসায় পাঠান’ বাক্যটি বিভিন্ন যানবাহনের পেছনে প্রায়শ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যা সামাজিক রুচির উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন নির্দেশ করে। তবে ছেলে-মেয়েকে স্কুলের পরিবর্তে মাদ্রাসায় পাঠিয়ে কেমন সুফল মিলবে তার একটি ছোট্ট উদাহরণ হতে পারে সংশ্লিষ্ট ছবিটি। ছবিটিতে লক্ষণীয় যে, একটি কাভার্ড ভ্যানের পেছনের ঊর্ধ্বাংশে লেখা রয়েছে ‘আপনার ছেলে মেয়েকে মাদ্রাসায় পাঠান’। আর উক্ত ভ্যানের দরজার মাঝামাঝি অংশে অর্ধবৃত্তাকারে লেখা রয়েছে ‘নিজেস্ব পরিবহন’; এখানে ‘নিজেস্ব’ ও ‘পরিবহন’ পদ দুটি ভুল বানান নির্দেশ করছে। এক্ষেত্রে সঠিক বানানে ‘নিজস্ব পরিবহণ’ লেখাই সমীচীন হতো। কিন্তু তা লেখা হয় নি। বোধ করি,  উক্ত কাভার্ড ভ্যানের পেছনের লেখাসমূহ যিনি লিখেছেন বা লিখিয়েছেন, হয়ত তিনি মাদ্রাসায় পড়ালেখা শিখেছেন। যার উত্তম দৃষ্টান্ত ‘নিজেস্ব’ ও ‘পরিবহন’ পদ দুটির বানানে স্পষ্ট। তাই ছেলেমেয়েকে মাদ্রাসায় পাঠিয়ে কেমন সুফল মিলবে, তা বুঝতে বেশি বেগ পেতে হবে না আশা করি। বিধায় বিভিন্ন যানবাহনের পশ্চাদ্ভাগে লিখিত ‘আপনার ছেলে-মেয়েকে মাদ্রাসায় পাঠান’, এমন আহ্বান সংবলিত বাক্যে প্রভাবিত না হয়ে ছেলে-মেয়েকে স্কুলে পাঠানোর আহ্বানে উদ্বুদ্ধ হওয়াই সচেতন অভিভাবকদের জন্য যথাযথ হতে পারে।